ট্রাম্প নারী ভোটারদের টানছেন, বাইডেন বয়স্কদের

অথর
নিজস্ব প্রতিবেদক   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :১৬ অক্টোবর ২০২০, ১২:১০ পূর্বাহ্ণ | নিউজটি পড়া হয়েছে : 44 বার
ট্রাম্প নারী ভোটারদের টানছেন, বাইডেন বয়স্কদের

যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে সর্বশেষ জনমত জরিপে ফ্লোরিডায় রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের পক্ষে জনসমর্থন সামান্য বাড়তে দেখা যাচ্ছে। আগের সপ্তাহের তুলনায় সামান্য এগিয়ে যাওয়া ট্রাম্প গুরুত্বপূর্ণ এ ‘ব্যাটল গ্রাউন্ডে’ ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেনকে ‘প্রায় ধরে ফেলেছেন’ বলে জানাচ্ছে জরিপের ফল। প্রায় একই সময়ে অনুষ্ঠিত অন্য কয়েকটি ‘ব্যাটল গ্রাউন্ড রাজ্যে বাইডেনকে ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। এর মধ্যে এ্যারিজোনা ও পেনসিলভানিয়ায় বাইডেনের সঙ্গে ট্রাম্পের ব্যবধান আরও বাড়িয়ে নিয়েছেন। স্থানীয় সময় বুধবার রয়টার্স ও ইপসস ৬টি ‘ব্যাটল গ্রাউন্ড’ অঙ্গরাজ্যের জনমত জরিপগুলো প্রকাশিত করে। খবর বিবিসি, সিএনএন ও রয়টার্সের।

৯ থেকে ১৩ অক্টোবর হওয়া রয়টার্স ও ইপসসের জাতীয় পর্যায়ের আরেকটি জরিপে বাইডেনকে ট্রাম্পের চেয়ে ১০ পয়েন্ট এগিয়ে থাকতে দেখা গেছে। ওই জরিপে অংশ নেয়া ৫১ শতাংশ বাইডেনের প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করেছেন, ট্রাম্প পেয়েছেন ৪১ শতাংশের সমর্থন। আগের সপ্তাহের জরিপে বাইডেন ট্রাম্পের চেয়ে ১২ পয়েন্ট এগিয়ে ছিলেন। রয়টার্স ও ইপসস চলতি মাসের ৬ থেকে ১৪ অক্টোবর যে ৬টি ‘ব্যাটল গ্রাউন্ড’ অঙ্গরাজ্যে জরিপ চালিয়েছে সেই উইসকনসিন, পেনসিলভানিয়া, মিশিগান, নর্থ ক্যারোলাইনা, ফ্লোরিডা ও এ্যারিজোনা নবেম্বরের নির্বাচনের চূড়ান্ত ফল নির্ধারণে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে মনে করা হচ্ছে। ফ্লোরিডার জরিপে অংশ নেয়া এক হাজার প্রাপ্তবয়স্কের মধ্যে ৬৫৩ জনই সম্ভাব্য ভোটার। অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে ৪৯ শতাংশ বাইডেনের পক্ষ নিয়েছেন, ৪৭ শতাংশ বেছে নিয়েছেন ট্রাম্পকে। আগের সপ্তাহে ট্রাম্পের পক্ষে ৪৫ শতাংশের সমর্থন দেখা গিয়েছিল। জরিপে অংশ নেয়াদের মধ্যে ১৭ শতাংশ এরই মধ্যে ভোট দিয়ে দেয়ার কথা জানিয়েছেন। ৪৯ শতাংশ বলেছেন বাইডেন করোনাভাইরাস মহামারী ভালভাবে সামলাতে পারতেন; এই ইস্যুতে ৪৪ শতাংশের সমর্থন গেছে ট্রাম্পের পকেটে। অর্থনীতি প্রশ্নে অবশ্য রিপাবলিকান প্রার্থীর প্রতিই জনসমর্থনের পাল্লা ভারি। ৪৯ শতাংশ বলেছেন ট্রাম্প অর্থনীতি ভাল সামলাবেন; এই ইস্যুতে ৪৫ শতাংশ তার ডেমোক্র্যাট প্রতিপক্ষকে বেছে নিয়েছেন। এ্যারিজোনায় বাইডেনের জনসমর্থন আগের সপ্তাহের তুলনায় ২ শতাংশ বেড়ে ৫০ শতাংশে পৌঁছেছে বলেও জানাচ্ছে ৭ থেকে ১৪ অক্টোবর পর্যন্ত হওয়া রয়টার্স ও ইপসসের জরিপ। ট্রাম্পের সমর্থন এখানে আগের মতোই ৪৬ শতাংশে আটকে আছে।

ট্রাম্পের ভরসা নারী ॥ নির্বাচন কাছে আসায় নির্দিষ্ট গ্রুপকে লক্ষ্য করে ভোট চাওয়া শুরু করেছেন ট্রাম্প ও বাইডেন। ট্রাম্প নারী ভোটারদের দলে ভেড়ানোর চেষ্টা করছেন। অন্যদিকে বয়স্কদের ভোট নিজের ঝুড়িতে পুরতে চান বাইডেন। প্রচারে নিজের পক্ষে নারীদের সমর্থন চেয়ে ট্রাম্প বলেছেন, আপনারা কি দয়া করে আমাকে পছন্দ করবেন। আমাকে ফেভার করবেন? আর বয়স্কদের ভোট টানার চেষ্টায় বাইডেন বলেছেন, ট্রাম্প বয়স্কদের খরচের খাতায় বিবেচনা করেন। একমাত্র যে বয়স্ককে তিনি কেয়ার করেন তিনি হলেন জ্যেষ্ঠ ডোনাল্ড ট্রাম্প। পেনসিলভানিয়ার জনসটাউন শহরতলিতে প্রচারাভিযানে গিয়ে ট্রাম্প বলেন, আমি আপনাদের সমস্যাসঙ্কুল এলাকাকে রক্ষা করেছি। তাই নয় কি? এ সময় নিজের বক্তব্য ট্রাম্প শুরু করেন প্রতিপক্ষ বাইডেনের সমালোচনার মধ্য দিয়ে। বাইডেন এই অঙ্গরাজ্যটিকে জরাজীর্ণ করে ফেলেছেন। নিজে চীনের সঙ্গে ব্যবসা নিয়ে ঝামেলা তৈরি করে পেনসিলভানিয়ায় বেকারত্ব তৈরি করলেও একই দোষ বাইডেনের ঘাড়ে চাপিয়ে দিয়েছেন তিনি। আধা ঘণ্টার বক্তব্যে সুপ্রীমকোর্টে বিচারক নিয়োগের ক্ষেত্রে নিজের প্রস্তাবিত এ্যামি কোনি ব্যারেটের প্রশংসায় অনেক কথা বলেন ট্রাম্প। সিনেট শুনানিতে ব্যারেট তেমন কিছু না বললেও ট্রাম্প বলেন, এ্যামি ভালো প্রভাব ফেলেছেন। তিনি মহান এক বিচারক হবেন। ১৯৮৮ সালে জর্জ বুশ সিনিয়রের পর গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গরাজ্যটিতে একমাত্র রিপাবলিকান হিসেবে ট্রাম্প জয়ী হন। একই দিনে ফ্লোরিডায় প্রচারণায় গিয়ে জো বাইডেন করোনাভাইরাস মহামারী মোকাবেলা ইস্যুতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের তীব্র সমালোচনা করেন। ২০১৬ সালে সেখানে রিপাবলিকান ট্রাম্প জয়ী হলেও এবার ডেমোক্র্যাটিক বাইডেন জয়ী হবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। ব্যাটল গ্রাউন্ড অঙ্গরাজ্যটিতে জনমত জরিপে ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে আছেন বাইডেন। মিয়ামির উত্তরে পেমব্রোক পাইনসের একটি অবসরপ্রাপ্ত কমিউনিটির ছোট জমায়েতে গিয়ে বাইডেন বলেন, ট্রাম্প কখনও আপনাদের প্রতি মনোযোগ দেননি। জ্যেষ্ঠদের ভালোর জন্য কিছু করার চেয়ে প্রেসিডেন্ট শেয়ার মার্কেট নিয়ে বেশি ভাবেন। ট্রাম্পের সমালোচনা করে বাইডেন বলেন, মহামারী মোকাবেলায় তার পদক্ষেপ হয়ে পড়েছে স্থূল, যেমন স্থূল তার প্রেসিডেন্ট হওয়া।’ যুক্তরাষ্ট্রে দুই লাখ ১৫ হাজারের বেশি মানুষের জীবন কেড়ে নেয়া করোনা ট্রাম্পের তুচ্ছতাচ্ছিল্য করা নিয়ে কথা বলতে গিয়ে বাইডেন বলেন, প্রেসিডেন্ট এক সময় বলেছিলেন, ‘ভাইরাসটি কার্যত কাউকে সংক্রমিতই করেনি। পুরো বক্তব্যের সময় মাস্ক পরে থাকা বাইডেন বয়স্ক নাগরিকদের লক্ষ্য করে বলেন, ট্রাম্প আপনাদের বিবেচনা করে থাকেন- ‘আপনারা খরচের খাতায়, আপনারা ভুলে যাওয়ার যোগ্য, আপনারা আসলে কোন অস্তিত্বশীল নন (নোবডি)।’ বাউডেন ফ্লোরিডায় গিয়েছেন ট্রাম্পের প্রচারের একদিন পর। করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর প্রথম প্রচারে ফ্লোরিডাকে বেছে নেন ট্রাম্প।

বাইডেনের পক্ষে ভারতীয়রা ॥ তিন-চতুর্থাংশ ভারতীয় আমেরিকানের সমর্থন বাইডেনের পক্ষে। তারা মনে করেন, রিপাবলিকানদলীয় বর্তমান প্রেসিডেন্টের অধীনে ভুল পথে হাঁটছে যুক্তরাষ্ট্র। বুধবার প্রকাশিত এক ভোটার জরিপে এমন তথ্যই জানা গেছে। যুক্তরাষ্ট্রে দ্বিতীয় সর্বাধিক অভিবাসী হলো ভারতীয় বংশোদ্ভূতরা। আগামী ৩ নবেম্বরের নির্বাচনে মোট ভোটারের মধ্যে এক শতাংশ এই দলের। কিছু কিছু স্থানে সংখ্যাধিক্য থাকায় তারা গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্টর।

সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।